আজ - বুধবার, ২২ আগস্ট, ২০১৮ ইং | ৭ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ: 

রাজ্জাক-তাইজুলে ২২২ রানে শেষ শ্রীলঙ্কা

 বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা টেস্ট সিরিজ ২০১৮
ক্রীড়া প্রতিবেদক : আবদুর রাজ্জাক বাংলাদেশের টেস্ট দলে ফিরেছেন চার বছর পর। আর তাইজুল ইসলাম দলের নিয়মিত সদস্য। তবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের সবচেয়ে খরুচে বোলিংয়ের রেকর্ড গড়েছেন। তবে এই দুই বাঁহাতি স্পিনারই মিরপুরের শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কি দুর্দান্ত বোলিংই না করলেন। তাইজুলের তারুণ্য ও রাজ্জাকের অভিজ্ঞতার মিশেলে বৃহস্পতিবার সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কাকে বাংলাদেশ গুটিয়ে দিয়েছে ২২২ রানে। প্রত্যাবর্তনের টেস্টে ৪ উইকেট পেয়েছেন রাজ্জাক। তাইজুলেরও শিকার ৪ উইকেট। আর কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান ২ উইকেট নিয়ে গুটিয়ে দিয়েছেন লঙ্কান ইনিংসের লেজ।
২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে চট্টগ্রামে এই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই সর্বশেষ টেস্টটি খেলেছিলেন রাজ্জাক। ২০০৬ সালে তার অভিষেক হয়েছিল টেস্টে। কিন্তু ১২ ম্যাচে মাত্র ২৩ উইকেট নেওয়ায় ক্রিকেটের সবচেয়ে সম্মানের এই ফরম্যাটে ক্যারিয়ারটি দীর্ঘায়িত হয়নি তার। ২০১৪ সালেই নিজের শেষ ওয়ানডেটি খেলেছিলেন এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম ২০০ উইকেট নেয়া বোলার রাজ্জাক। ১৫৩ ওয়ানডেতে তিনি শিকার করেছিলেন ২০৭ উইকেট। একটি হ্যাটট্রিকও আছে তার এই ফরম্যাটে।
রাজ্জাক যে বছর শেষ টেস্ট খেলেছিলেন সেবছরই অর্থাৎ ২০১৪ সালে অভিষেক হয়েছে তাইজুলের। অভিষেকে ৫ উইকেট পাওয়া এই ২৬ বছর বয়সী বোলার মোটামুটি নিয়মিত বাংলাদেশের স্কোয়াডে। তবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চলতি সিরিজের প্রথম টেস্টে ৬৭.৩ ওভার বল করে তিনি দিয়েছেন ২১৯ রান, যা বাংলাদেশের সবচেয়ে খরুচে বোলিংয়ের রেকর্ড।
তবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে সুযোগ পেয়ে জ্বলে উঠেছেন এই দুই স্পিনারই। শ্রীলঙ্কার দলীয় ১৪ রানে প্রথম উইকেট নেন রাজ্জাক। ওপেনার দিমুথ করুনারতেœকে বোকা বানিয়ে স্টাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলেন তিনি। প্রথম টেস্টে ৩০৮ রানের জুটি গড়া কুশল মেন্ডিস ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা এই ম্যাচেও জুটি বাঁধেন। তবে দলীয় ৬২ রানে ধনঞ্জয়াকে স্মিপে ক্যাচ বানিয়ে এই জুটি ভাঙেন তাইজুল। শ্রীলঙ্কাও হারায় দ্বিতীয় উইকেট।
দলটি সবচেয়ে বড় ধাক্কা খায় ইনিংসের ২৮ তম ওভারে। প্রথম দুই বলে দানুশকা গুনাথিলাকা ও অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালকে সাজঘরে ফেরান রাজ্জাক। শেষপর্যন্ত রাজ্জাকের হ্যাটট্রিক না হলেও শ্রীলঙ্কা দলীয় ৯৬ রানে ৪ উইকেট হারায়। তারা ৪ উইকেটের বিনিময়ে ১০৫ রান নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে যায়।
লাঞ্চ বিরতি থেকে ফিরেই দুই স্পিনার আবার আঘাত হানেন। বিরতির পর টানা দুই ওভারে একটি করে উইকেট নেন রাজ্জাক ও তাইজুল। দলীয় সর্বোচ্চ ৬৮ রান করে কুশল ফিরে যান রাজ্জাকের বলে বোল্ড হয়ে।  ফলে ৬ উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কার স্কোর দাঁড়ায় ১১০ রানে। এসময় রোশেন সিলভা ও দিলরুয়ান পেরেরা মিলে ৫২ রানের জুটি গড়ে দলের দুরবস্থা সামাল দেয়ার চেষ্টা করেন। এসময়ে আবার দৃশ্যপটে আসেন তাইজুল। ব্যক্তিগত ৩১ রানে তিনি ফিরিয়ে দেন দিলরুয়ানকে। ফলে দলীয় ১৬২ রানে সপ্তম উইকেট হারায় লঙ্কানরা।
শ্রীলঙ্কার ইনিংসের এতটা সময় ৭ উইকেট নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নিয়েছিলেন রাজ্জাক (৪) ও তাইজুল (৩)। এরপর লঙ্কান ইনিংসে আঘাত হানেন আগুণ ঝরাতে থাকা মোস্তাফিজ। ৫৮ তম ওভারের প্রথম বলে তিনি সাজঘরে ফেরান লঙ্কান অল রাউন্ডার আকিলা ধনঞ্জয়াকে। ফলে রোশেনের সাথে তার ৪৩ রানের জুটি ভেঙে যায়। এরপরই চা-বিরতি দেয়া হয়।
চা-বিরতির পর ৬০তম ওভারের প্রথম বলে নতুন ব্যাটসম্যান রঙ্গনা হেরাথকে মোস্তাফিজ ক্যাচ বানান মুশফিকুর রহীমের হাতে। ফলে দলীয় ২০৭ রানে লঙ্কানদের নবম উইকেটের পতন হয়।
২৮ তম ওভারে ব্যাট হাতে নেমে উইকেটের একপ্রান্ত ধরেছিলেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান রোশেন। মাত্র তৃতীয় টেস্ট খেলতে নামা রোশেন তুলে নেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি। এর আগের টেস্টেই তিনি সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন। কিন্তু ব্যক্তিগত ৫৬ রানে তাইজুলের বলে উইকেটকিপার লিটন দাসের হাতে ধরা পড়েন তিনি। ১২৪ বলের এই ইনিংসটি সাজিয়েছিলেন ৩টি চার ও একটি ছয়ে। শেষ উইকেট হিসেবে তিনি ফিরে যান সাজঘরে।
এদিন দারুণ ফিল্ডিং করেছেন মুশফিক। তিনটি দারুণ ক্যাচ নিয়েছেন তিনি। প্রত্যাবর্তনের টেস্টে ৬৩ রান খরচায় ৪ উইকেট পেয়েছেন রাজ্জাক। টেস্টে তিনি প্রথমবারের মত চার উইকেটে পেয়েছেন। এটাই টেস্ট ক্যারিয়ারে রাজ্জাকের সবচেয়ে ভাল বোলিংয়ের রেকর্ড। তাইজুলের চার উইকেট এসেছে ৮৩ রানের বিনিময়ে। আর ১৭ রানে ২ উইকেট পেয়েছেন মোস্তাফিজ।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস : ২২২ (৬৫.৩ ওভার) (কুশল ৬৮, করুনারতেœ ৩, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ১৯, গুনাথিলাকা ১৩, চান্দিমাল ০, রোশেন ৫৬, নিরোশান ১, দিলরুয়ান ৩১, আকিলা ২০, হেরাথ ২, লাকমাল ৪*; মিরাজ ০/৫৪, রাজ্জাক ৪/৬৩, তাইজুল ৪/৮৩, মোস্তাফিজ ২/১৭)।


প্রকাশ: ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৯:০২:৫১ পুর্বাহ্ন



 
Advertise